শিক্ষিকার অনশনে পালালেন শিক্ষক

পটুয়াখালী সদর উপজেলার মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের অনৈতিক সম্পর্কে জড়ানোয় শিক্ষক প্রেমিক রুহুল আমিনের বাড়িতে অনশন করছেন এক স্কুল শিক্ষিকা।
মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের হাজী বাড়িতে অনশন শুরু করেন ঐ শিক্ষিকা। তারা দুজনেই একই স্কুলে তিন বছর ধরে শিক্ষকতা করে আসছেন।

শিক্ষিকা বলেন, তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে স্কুল কম্পাউন্ডে নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক সম্পর্ক করে আসছে।

তিনি আরো বলেন, আমার কাছ থেকে কিছু দিন আগেও রুহুল আমিন ৫০ হাজার টাকা নিয়েছে। কম্পিউটার ক্রয়ের কথা বলে আমার কাছ থেকে ৪৫ হাজার টাকা নিয়েছে। মোটরসাইকেল ক্রয়ের কথা বলে ৮৫ হাজার টাকা নিয়েছে। আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা করে বিভিন্ন সময় আমার কাছ থেকে বহুত টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আমি বিয়ের কথা বললে সময়ক্ষেপণ করত। গত ৩১ ডিসেম্বর আমি তার বাড়িতে গিয়ে দেখি সে বিবাহিত।

এদিকে প্রেমিকা সকালে অবস্থান শুরু করলে রুহুল আমিন বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানান, রুহুল আমিন মাস্টারের আগেও এমন একটি ঘটনা ঘটিয়েছে। সেই মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক জানাজানি হলে স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ স্থানীরা সালিশ মীমাংসা করে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেন।

রুহুল আমিন পলাতক থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে তার পরিবার অভিযোগ অস্বীকার করে জানায়, রুহুল আমিন নির্দোষ, সে একজন স্কুল শিক্ষক। এলাকাবাসী যা বলেছে তা মিথ্যা ও বানোয়াট।

এ বিষয় পটুয়াখালী সদর থানায় রুহুল আমিন মাস্টারের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ করা হয়েছে।

পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, অভিযোগ নেয়া হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সূত্রঃDailyBangladesh

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*