পাপনকেও ছাড় দেননি মাহমুদউল্লাহ

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে হার কষ্ট দিয়েছিল বাংলাদেশ দলকে। এরপর কঠোর সমালোচনাও হজম করতে হয়েছিল মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাহিনীকে। খোদ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও প্রশ্ন তুলেছিলেন তিন সিনিয়র ক্রিকেটারের ধীরগতির ব্যাটিং নিয়ে। সরাসরি না বললেও ম্যাচ হারের জন্য সিনিয়রদের ব্যাটিংকেও দায়ী করেছিলেন তিনি। পাপনের সেই মন্তব্য যে ভালো লাগেনি সেটাই প্রকাশ পেল পাপুয়া নিউগিনির বিরুদ্ধে ম্যাচ জয়ের পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সংবাদ সম্মেলনে।

ম্যাচ শেষে সমালোচকদের একহাত নেন মাহমুদউল্লাহ। বাদ যাননি বিসিবি সভাপতিও। বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘আজকে ভালো খেলছি বলে সবার কাছে মনে হবে ভালো। আবার এক ম্যাচে খারাপ করলে খুব বেশি করে সমালোচনা শুরু হয়ে যাবে। অনেক প্রশ্ন এসেছে। আমাদের ব্যাটিংয়ের স্ট্রাইক রেট প্রসঙ্গে। আমাদের তিন সিনিয়র ক্রিকেটারের স্ট্রাইক রেট নিয়ে। আমরা তো চেষ্টা করেছি। চেষ্টার বাইরে তো আমাদের কাছে কিছু নেই। এরকম না যে আমরা চেষ্টা করিনি। আপ্রাণ চেষ্টা করেছি। কিন্তু ফল আমাদের পক্ষে আনতে পারিনি।’

মাহমুদউল্লাহ আরও বলেন, ‘গত কয়েকদিনে যা হলো… ঠিক আছে, আমরা মানুষ, আমরা ভুল করি। এ কারণে একেবারে ছোট করে ফেলা ঠিক নয়। এটা আমাদের দেশ। আমরা যখন খেলি, পুরো দেশ একসঙ্গে খেলি। এটা মাথায় থাকে সবসময়। আমাদের চেয়ে ফিলিংস কারও বেশি নয়, আমার মনে হয়।

আক্ষেপের সুরে বাংলাদেশ অধিনায়ক বললেন, ‘আমরাও মানুষ, আমাদের অনুভূতি কাজ করে। আমাদের পরিবার আছে, সবারই পরিবার আছে। আমাদের বাবা-মায়েরা বসে থাকে টিভি সেটের সামনে, সন্তানরা বসে থাকে। তারা মন খারাপ করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তো এখন হাতের নাগালে, সবারই মোবাইল আছে। সমালোচনা তো হবেই। আমরাও আশা করি সমালোচনা, খারাপ খেলেছি সমালোচনা তো হবেই। কেন হবে না? সমালোচনা অবশ্যই হবে, খারাপ খেলেছি। কিন্তু একেবারে ছোট করে ফেলা ঠিক নয়।সব জায়গা থেকেই সমালোচনা হয়েছে। ক্রিকেটে ও ক্রিকেটের বাইরে থেকেও। টি-টোয়েন্টির মতো সংস্করণে কোনো দল ফেবারিট থাকে না। ছোট দলও বড় দলকে হারিয়ে দিতে পারে।’

সূত্রঃbd24live.com

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*